• Your Othoba.com
Books & Stationery

You have no items in your shopping cart.

 

দেশী বই

7628 products found

Sort by
Display per page
25% Off
25% Off

বাবু-১২

Tk 120 Tk 90
27% Off

কাজল চোখের মেয়ে (হার্ডকভার)

Tk 200 Tk 146

কবিতা কী গল্প নয়? আমার কাছে সকলই গল্প । কিন্তু গল্প বলার ধরণগুলো কেবল আলাদা। আলাদা বলেই আমি ছ’পৃষ্ঠার একটা গল্পে যা বলি, কখনো কখনো তা হয়তো এমন দুই লাইনেই বলে ফেলতে পেরেছি বলে মনে হয়‘কোথায় যাবে তোমার মানুষ রেখে? মানুষ কেন হারিয়ে গেলে, মানুষ পাওয়া শেখে?
কিংবা “শোনো, কাজল চোখের মেয়ে, আমার দিবস কাটে, বিবশ হয়ে তোমার চোখে চেয়ে কিংবা, ততটুকু দিও, যার পরে আর কিছু চাইবার, বাকী না থাকে! ততটুকু নিও, যার পরে আর, পিছু চাইবার, ফাকি না থাকে! যেতে হলে, এখুনি যাও, পরে গেলে মায়া বেড়ে যাবে, থেকে গেলে, এখুনি থাকো, বেলাশেষে ছায়া বেড়ে যাবে। আমি যা লুকিয়ে রাখি, গভীর, গোপন, তার সবটুকুই তোমার আপন। মেঘের মতো ভার হয়ে রয় বুক, মেঘের মতো থমথমে কী ব্যথা! মেঘ তো তবু বৃষ্টি হয়ে ঝরে, আমার কেবল জমছে আকুলতা। ততটুকু হোক দেনা, যতটুকু হলে, ফিরে আসবার পথটুকু থাকে চেনা। কাজল চোখের মেয়ে বুকের ভেতর পাখির ভেজা পালকের স্পর্শে তিতির বয়ে যাওয়া অজস্র অনুভূতির নদী ছুঁয়ে দেয়ার গল্প, চাইলে তাকে আপনি কবিতা বলতে পারেন, নাও পারেন। কিন্তু স্পর্শ বলবেন, স্পর্শিত হবেন, তা নিশ্চিত।

25% Off

মেঘকুটির

Tk 220 Tk 165

কিছু মানুষ ভালো থাকার আশায় এই শহরকে ভালোবেসে তার বুকে বসতি গড়ে। কিন্তু শহর তাদেরকে ভালোবাসতে পারে না। দিনশেষে অনেকেই ভালো নেই। অনেক অজানা সমীকরণে বাঁধা। তবু কেউ জিজ্ঞেস করলে তারা বলে, “ভালো আছি।” মনের গহিনে কষ্ট রেখে ভালো আছি বলতে বলতে কিছু মানুষ খুব ক্লান্ত। এই ক্লান্তি বুকে নিয়েই দুঃখ-আনন্দের মেঘ দিয়ে তারা কল্পনার মেঘকুটির তৈরি করে। একসময় তারা সত্যি সত্যি মেঘ হয়ে যায়, দূরের মেঘ। জীবনের শেষে অথবা সম্পর্কের শেষে শুধু স্মৃতি থাকে, সময়টা হারিয়ে যায়।

30% Off

মুসলিমের সুরক্ষা (পেপারব্যাক)

Tk 167 Tk 117

ব্যস্ততায় ভরা জীবনে একটু সময় করে আল্লাহকে স্মরণ করার ফুরসত মেলে না আমাদের। এভাবে আল্লাহর স্মরণ থেকে উদাসীন থাকতে থাকতে একসময় আমাদের অন্তর মরে যায়। রাসূলুল্লাহ  ঠিক এমনটিই বলেছেন—
‘যে ব্যক্তি তার রবের যিকর করে আর যে ব্যক্তি তার রবের যিকর করে না, তাদের দুজনের দৃষ্টান্ত হলো জীবিত ও মৃতের মতো।’ [বুখারি, ৬৪০৭]
তা হলে, মৃত অন্তরে সজীবতা ফিরিয়ে আনার উপায় কী? আল্লাহকে স্মরণ করা। বেশি বেশি যিকর করা। কিন্তু মনগড়া যিকর করলেই হবে না। যিকর হতে হবে মাসনূন। অর্থাৎ, রাসূলুল্লাহ -এর সুন্নাহভিত্তিক।
‘মুসলিমের সুরক্ষা’ বইটি তেমনই একটি বই। রাসূলুল্লাহ  দৈনন্দিন জীবনে যেসব যিকর করতেন বা সাহাবিদের করতে উৎসাহিত করতেন, বক্ষ্যমাণ বইটি সেসবের-ই সংকলন। পাশাপাশি বইটিতে সুন্নাহ সম্মত ঝাড়ফুঁক বা রুকইয়াহ নিয়েও আলোচনা করা হয়েছে। মাসনূন দুআ, ওযীফা ও রুকইয়াহ’র জন্য ‘মুসলিমের সুরক্ষা’ বইটি শাইখ ড. সাঈদ কাহতানি -এর এক অনবদ্য সংকলন।



30% Off

দ্য কেয়ারিং ওয়াইফ (হার্ডকভার)

Tk 300 Tk 210

সাহিত্য জগতের ব্যতিক্রমী বই 'দ্যকেয়ারিংহাজব্যান্ড এবং 'দ্যকেয়ারিংওয়াইফ'! আপনার পারিবারিক জীবনকে সুখী, সমৃদ্ধ এবং শান্তিময় করতে বইদুটি সহায়ক ভূমিকা পালন করবে ইনশাআল্লাহ।আজকের এই বিপর্যস্ত সমাজে একজন কেয়ারিং হাজব্যান্ড বা একজন কেয়ারিং ওয়াইফ পাওয়া সত্যিই সৌভাগ্যের ব্যাপার।পুরুষ কী মহিলা সবাই চায় তার জীবনে একজন কেয়ারিং লাইফ পার্টনার জুটুক। তাই একজন দ্বীনি লাইফ পার্টনার হিসেবে নিজেকে এবং স্পাউসকে গড়ে তুলতে অনেকেই বিভিন্নরকম চেষ্টা করে থাকেন।কিন্তু এ যাত্রায় অনেকে ই ক্লান্ত শ্রান্ত, আবার অনেকেই ব্যর্থ।

সমাজে দিনকে দিন স্বামী-স্ত্রীর মাঝে সংসার জীবনের প্রকৃত লক্ষ্য হারিয়ে যাচ্ছে, বরকত কমে যাচ্ছে, ডিভোর্সের সংখ্যা ও বেড়ে যাচ্ছে! ২০২০ সালের একটি জরিপ অনুযায়ী শুধু ঢাকা শহরেই প্রতিদিন গড়ে ৩৯ জনের ডিভোর্স হচ্ছে; বাড়ছে বিভিন্ন রকম অসামাজিক কার্যক্রম ও অশ্লীলতা।

এমতাবস্থায় শুধু এই সব সমস্যার সমাধানই নয়, একটি সুখী দাম্পত্য জীবনকে আরও সুন্দরও আরও বৈচিত্র্যময় করে তুলতে ‘দ্যকেয়ারিংহাজব্যান্ড’ এবং ‘দ্যকেয়ারিংওয়াইফ’ বই দুটো খুবইকার্যকরী ভূমিকা পালন করবে।

30% Off

বিশ্বাসীদের গল্পকথা (পেপারব্যাক)

Tk 220 Tk 154

বিশ্ব জুড়ে মুসলিমদের নিজস্ব ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি আজ পাশ্চাত্য সাংস্কৃতিক আগ্রাসনের শিকার।অশ্লীলতা, পরশ্রীকাতরতা, অবৈধ যৌনাচার ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র! এ্যান্টি-ইসলামিস্ট রানারীদের হিজাবসহ ইসলামের সামাজিকনীতি ও আচারঅনুষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে উঠে পড়ে লেগেছে।ইসলামী জীবন বিধানকে সমৃদ্ধি ও অগ্রগতির অন্তরায় হিসেবে উপস্থাপনের জন্য তাদের রয়েছে সকল ধরনের প্রচেষ্টা।তাদেরউদ্দেশ্য- আমাদের ধর্মীয় বিশ্বাসগুলোতে পরিবর্তন আনয়নকরা।এরই ধারাবাহিকতায় তারা বুদ্ধিমত্তার সাথে দরদী বন্ধু বেশে স্বাধীনতা ও সাম্যতার অজুহাতে নারীদের সামনে ছুঁড়ে দিয়েছেন। মাত্র কিছু সুযোগ সুবিধা। আর বিনিময়ে কেড়ে নিয়েছে তাঁদের নারীত্ব, মাতৃত্ব, সম্মান, গৌরবওমর্যাদা।

ভাসানবাড়ি (পেপারব্যাক)

Tk 230

ভাসানবাড়ি — আজ থেকে দুশো বছর আগে এক জ্যোতির্বিজ্ঞানীর তৈরি এক রহস্যময় স্থাপত্য। তার আগে একটা পুকুর ছিল এখানে। গোটা গ্রামের লোক ঠাকুর বিসর্জন দিত তাতে। সেটাকে বলা হত ভাসানপুকুর, সেখান থেকে ভাসানবাড়ি। লোকে বলে সেই পুকুরটার আত্মা এই বাড়ির ভিতরেও সঞ্চারিত হয়েছে। এই বাড়িটাও মানুষকে ভাসিয়ে নিয়ে যায় অন্তিমের দিকে। ভাসানের দিকে… কিন্তু সত্যি অন্তিম বলে কিছু হয় কি? কে বলতে পারে মাটি গলে, রঙ উঠে গিয়ে নদীর অপরপ্রান্তে যখন খড়ের কাঠামোটা পৌছায়, তখন কেউ অপেক্ষা করে না তার জন্য? কেউ আবার নিজের মতো করে সাজিয়ে নেয় না তাকে? মরে যাবার আগে শশাঙ্কমোহন বলেছিলেন হ্যালির ধূমকেতুর মতো এই বাড়িতেও নির্দিষ্ট সময় পরে ফিরে ফিরে আসে কোনো মানুষ। কে সে? এ বাড়ির ছাদ থেকে দেখা যায় অচেনা আকাশ, সত্যি কি সময়ের নিয়ম মানে না বাড়িটা? কিন্তু কীভাবে? রহস্য আর সময়ের চাদর মুখে টেনে কাদের অপেক্ষায় থাকে ভাসান বাড়ি?




28% Off

ডোপামিন ডিটক্স

Tk 180 Tk 130

কাজে গড়িমসি করে যাচ্ছেন? অস্থির লাগছে, মন বসাতে পারছেন না কাজে? গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্যের ক্ষেত্রে উৎসাহ পাচ্ছেন না?

যদি তাই হয়ে থাকে, আপনার প্রয়োজন ডোপামিন ডিটক্স বা ডোপামিন বিষমুক্তকরণ ।

বর্তমান বিশ্বে সর্বত্র রয়েছে চিত্তবিক্ষেপের উপকরণ, ফলে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো পেছনে পড়ে যাবে এটাই স্বাভাবিক। লক্ষ্য ভুলে আমাদের তখন মনে হয়, যাই একটু হেঁটে আসি। কিংবা এক কাপ কফি পান করি। বা দেখি তো, কী এসেছে ইমেইলে? আর এইসব তখন এতটাই গুরুত্বপূর্ণ মনে হয় যে আমরা আমাদের সত্যিকার লক্ষ্যের কথা বেমালুম ভুলে যাই।

কী, উপরের এই পরিস্থিতির সাথে নিজের মিল পাচ্ছেন তো?

যদি তাই হয়, ভয় পাওয়ার কিছুই নেই। আপনি স্রেফ অতি উদ্দীপিত হয়ে আছেন। আর সে কারণেই আপনার প্রয়োজন ডোপামিন বিষমুক্তকরণ।

সেক্ষেত্রে এই বইটি হতে পারে আপনার পথপ্রদর্শক। তবে চলুন, ঘুরে আসা যাক….

 

28% Off

ভাসানবাড়ি (প্রিমিয়াম হার্ডকভার)

Tk 430 Tk 310

ভাসানবাড়ি — আজ থেকে দুশো বছর আগে এক জ্যোতির্বিজ্ঞানীর তৈরি এক রহস্যময় স্থাপত্য। তার আগে একটা পুকুর ছিল এখানে। গোটা গ্রামের লোক ঠাকুর বিসর্জন দিত তাতে। সেটাকে বলা হত ভাসানপুকুর, সেখান থেকে ভাসানবাড়ি। লোকে বলে সেই পুকুরটার আত্মা এই বাড়ির ভিতরেও সঞ্চারিত হয়েছে। এই বাড়িটাও মানুষকে ভাসিয়ে নিয়ে যায় অন্তিমের দিকে। ভাসানের দিকে… কিন্তু সত্যি অন্তিম বলে কিছু হয় কি? কে বলতে পারে মাটি গলে, রঙ উঠে গিয়ে নদীর অপরপ্রান্তে যখন খড়ের কাঠামোটা পৌছায়, তখন কেউ অপেক্ষা করে না তার জন্য? কেউ আবার নিজের মতো করে সাজিয়ে নেয় না তাকে? মরে যাবার আগে শশাঙ্কমোহন বলেছিলেন হ্যালির ধূমকেতুর মতো এই বাড়িতেও নির্দিষ্ট সময় পরে ফিরে ফিরে আসে কোনো মানুষ। কে সে? এ বাড়ির ছাদ থেকে দেখা যায় অচেনা আকাশ, সত্যি কি সময়ের নিয়ম মানে না বাড়িটা? কিন্তু কীভাবে? রহস্য আর সময়ের চাদর মুখে টেনে কাদের অপেক্ষায় থাকে ভাসান বাড়ি?




28% Off

কাউরীবুড়ির মন্দির

Tk 450 Tk 324

বইটিতে চারটি কাহিনী আছে। বেশ বড় – বড় আকারের কাহিনী। আজকালকার পত্রিকাগৃহের ভাষায় মিনিমাম ‘নভেলা’ বলাই চলে। ঠগিদের কথা বাংলা পাঠকেরা অনেকেই জানেন। সেই ঠগিদের নিয়েই অভীক লিখেছেন তাঁর প্রথম অতিপ্রাকৃত কাহিনী “শোধ”। সুন্দরভাবে টেনে এনেছেন প্রায় কিংবদন্তীসম নায়ক স্লীম্যানকে। ভারতের ইতিহাস থেকে ছেঁকে তুলে এনেছেন নির্ভুল তথ্য। কোথাও মনে হয় না পান্ডিত্য ভর করে আছে লেখকের কলমে অথচ পড়লেই মনে হয় লেখকের চর্চা অতুলনীয়। ভয় জেঁকে বসে তন্ত্রসাধনার মারণ – উচাটনের দ্বারা। কেউ প্রথম গল্প হিসাবে এত সাংঘাতিক বিবরণ দিতে পারেন এটা ভাবাই কঠিন। আমরা বাঙালিরা তন্ত্র, তান্ত্রিক ইত্যাদি শুনলে যা বুঝি সেই ধারণাকে নস্যাৎ করে তন্ত্রের আগমনের ইতিহাসের সুতোয় জাল বুনেছেন লেখক ২য় গল্পে। পালরাজাদের সময়কালের একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে বহু বছর ধরে ঘটে আসা এক অমোঘ অভিশাপ। একটি পরিবারের কাছে আছে একটি ফলক। সেই ফলক কারও জীবনে আনবে মৃত্যু। কিন্তু কার? কীভাবে নিয়তি তাকে বাধ্য করবে? একটা চক্র পূর্ণ হবার অপেক্ষায় আছেন মহাকাল। ৩য় গল্পটি একটি সুপারন্যচারাল থ্রিলার। ডামরী নামক অপদেবী কীভাবে গ্রাস করতে আরম্ভ করে এক ব্যক্তিকে তা যে ভয়াল পরিবেশ বিবরনের মধ্যে দিয়ে লে খক তুলে ধরেছেন সেই নিয়ে যা-ই বলব, মনে হবে কম হয়ে গেল। ৪র্থ গল্পটি হল একটি আন্তর্জাতিক মানের লেখা, অসাধারণ ভাষাশৈলীর লেখা, দুর্দান্ত রিসার্চ বেসড লেখা। বেতালকে নিয়েই একটি অদ্ভুত ভয়াল কাহিনী ফেঁদেছেন লেখক। বেতাল এখানে রুদ্রের সহচর গোত্রের। বেতাল মন্দিরের পূজারীর উপরে নেমে আসে ইনকুইজিটরের কোপ। কিন্তু সেটা কি কেবলই ইনকুইজিশন ফলাতে? নাকি তার পিছনে ছিল কোনও গূঢ় রহস্য? কীসের অন্বেষণ? গল্পটাকে প্যারালাল ভাবে কয়েকটা কালখণ্ডে খেলিয়েছেন লেখক। কালাশ জনজাতির আফগান এলাকা, আইসল্যান্ড, পর্তুগাল, ভারত …. কিন্তু জগাখিচুড়ি নয় স্তরে – স্তরে সাজানো বিরিয়ানির মতই সুস্বাদু লেখা। কখন যে গল্পটা ভয়ের গ্রাসরূপী কৃষ্ণশাপ থেকে মুক্তি পাওয়ার আকুল বেদনাগাথা হয়ে ওঠে তা বোঝাই যায় না।


50% Off

আবু বকর সিদ্দিক রাদি. (হার্ডকভার)

Tk 140 Tk 70

মক্কার আবু কুহাফার ছেলে আবদুল্লাহ। নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের একান্ত সঙ্গী। নবুওয়াত প্রাপ্তির আগে কিংবা পরে, নবিজির প্রিয় সাথি। বদর উহুদ খন্দক তাবুকের বীর সিপাহী, ইসলামের প্রথম খলিফা আবু বকর সিদ্দিক রাদিয়াল্লাহু আনহু।
নিজ গোত্রে তিনি ছিলেন সকলের সমাদৃত। ব্যবসা-বাণিজ্য কিংবা আচার-ব্যবহারে তিনি ছিলেন নম্র। সবার কাছে ছিলেন বিশ্বস্ত ব্যক্তিত্ব। তার বিশ্বস্ততার প্রমাণ বিশ্ব মানবতার মুক্তিদূত নবিজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিজে দিয়েছেন। নামকরণ করেছেন—সিদ্দিক—বিশ্বস্ত মুমিন।
ইসলামের প্রথম যুগেই তিনি ইসলাম গ্রহণ করেন এবং ইসলামের ওপর আসা সময়ে সময়ে বাধা; লঙ্ঘন করে নবিজির সঙ্গদানে ধন্য করেন নিজেকে। হিজরত করেন নবিজির আদেশে। একান্ত সঙ্গী হন গারে সাওরে। ব্যথা-বেদনা মেনে নেন মাথাপেতে। নবিজির মৃত্যুপরবর্তী উম্মাহর রাহবার ছিলেন তিনি। ইরতিদাদের ভয়ঙ্কর ফিতনা থেকে উম্মতকে আগলে নিয়েছিলেন তিনিই। মিথ্যা নবি দাবীদারদের অহংকার ধুলোয় মিশিয়েছেন তিনিই। বিস্তৃত করেছেন মুসলিমদের সীমানা প্রাচীর। তিন বছরের বর্ণাঢ্য খিলাফত শেষে অব্যহতি নেন খিলাফত থেকে, দুনিয়া থেকে। পাড়ি জমান শ্রেষ্ঠ বন্ধুর কাছে। রাদিয়াল্লাহু আনহু ওয়া রাদু আনহু।
মিসরের প্রখ্যাত মুহাক্কিক, লেখক ও সাহিত্যিক শাইখ মুহাম্মদ আশরাফ আল-ওয়াহশ রচিত এর গ্রন্থ আমাদের এ মহান সাহাবিরই গল্প শোনাবে।

18% Off

ছোটদের আদব সিরিজ (পেপারব্যাক)

Tk 850 Tk 697

সবাই পৃথিবীর সেরা হতে চায়। তবে সেরা হওয়ার উপায় অনেকেই জানে না। সেরা হওয়ার প্রথম শর্তই হচ্ছে আদব-আখলাক সুন্দর হওয়া। আদব-আখলাক সুন্দর হলে সবাই উপকৃত হয়। ব্যক্তি যেমন শান্তিতে থাকে, তেমনি শান্তিতে থাকে তার পরিবার। আর এর সৌন্দর্য ছড়িয়ে পড়ে পুরো সমাজে।
তুমি কি নবিজির প্রিয় হতে চাও? কিয়ামাতের দিন প্রিয় নবিজির কাছাকাছি থাকতে চাও? যেদিন সবাই পেরেশান থাকবে, সেদিন নবিজির কাছাকাছি থাকতে হলে আদব-আখলাক সুন্দর হওয়া চাই। প্রিয় নবিজি বলেছেন, “তোমাদের মধ্যে যার স্বভাব-চরিত্র সবচেয়ে সুন্দর হবে, কিয়ামাতের দিন সে আমার সবচেয়ে প্রিয় হবে এবং আমার সবচেয়ে কাছে থাকবে।
”আদব-আখলাক শেখার সবচেয়ে ভালো সময় শৈশবকাল। বড় হয়ে শেখা অনেক কঠিন। তাই বড়দের উচিত ছোটদের উত্তম আদব-আখলাক শিক্ষা দেওয়া। সুন্দর আদব-আখলাক গঠনের উদ্দেশ্যেই বহুদিনের প্রচেষ্টায় আমরা নিয়ে এসেছি ‘ছোটদের আদব সিরিজ’ এবং ‘ছোটদের আখলাক সিরিজ’। দুটি সিরিজের মোট বারোটি বই। যেখানে গল্পে গল্পে আদব ও আখলাকের বিভিন্ন দিক ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। ছোটদের উপযোগী করে সহজ সাবলীল ভাষায় উপস্থাপন করা হয়েছে অসংখ্য গল্প। গল্পগুলো বেছে নেওয়া হয়েছে কুরআন, হাদীস ও সীরাতের বিশুদ্ধ কিতাব থেকে। সাথে প্রতিটি পৃষ্ঠাতেই রয়েছে আকর্ষণীয় কারুকাজের রঙিন রঙিন ছবি; যা মুহূর্তেই শিশুদের মন কেড়ে নেবে।

আখলাক সিরিজটির বৈশিষ্ট্:
আখলাক সিরিজে রয়েছে ছয়টি বই।
প্রতিটি বইয়ে আছে ২৪ পৃষ্ঠা।
প্রতি পৃষ্ঠায় আছে মনকাড়া সব রঙ্গিন ছবি ও দৃশ্য। তাই শিশুরা বিরক্ত হবে না।
ছয়টি বইয়ের মোট ১৪৪ পৃষ্ঠায় পাবেন শত শত শিক্ষণীয় গল্প ও ঘটনা।
প্রতিটি গল্পই নেওয়া হয়েছে কুরআন, হাদীস ও সীরাতের বিশুদ্ধ কিতাব থেকে।
ফলে আপনার শিশু অনুপ্রাণিত হবে বিশুদ্ধ ইসলামি শিক্ষার আলোকে।
পুরো সিরিজটি সাজানো হয়েছে শিশুতোষ মন-মানসিকতার কথা মাথায় রেখে। তাই কোথাও জটিল শব্দ বা বড় বাক্য ব্যবহার করা হয়নি। সহজ সাবলীল করার চেষ্টা করা হয়েছে।
আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, যে শিশুরা নিজে থেকে এখনো বই পড়তে পারে না
মানে যাদের বয়স ছয় বছরের কম তারাও এই বইগুলো দেখতে ও শুনতে খুব পছন্দ করবে।
একটি সুন্দর গল্পই বদলে দিতে পারে আপনার শিশুর ভাবনার জগৎ।
আপনার শিশুর আদব-আখলাক যেন সুন্দর হয় সে উদ্দেশ্যেই সাজানো হয়েছে প্রতিটি পৃষ্ঠা, প্রতিটি গল্প।
- ছোটরা গল্প পড়তে পড়তেই জেনে যাবে শত শত বিশুদ্ধ হাদীস।

18% Off

ছোটদের আখলাক সিরিজ (পেপারব্যাক)

Tk 850 Tk 697

সবাই পৃথিবীর সেরা হতে চায়। তবে সেরা হওয়ার উপায় অনেকেই জানে না। সেরা হওয়ার প্রথম শর্তই হচ্ছে আদব-আখলাক সুন্দর হওয়া। আদব-আখলাক সুন্দর হলে সবাই উপকৃত হয়। ব্যক্তি যেমন শান্তিতে থাকে, তেমনি শান্তিতে থাকে তার পরিবার। আর এর সৌন্দর্য ছড়িয়ে পড়ে পুরো সমাজে।
তুমি কি নবিজির প্রিয় হতে চাও? কিয়ামাতের দিন প্রিয় নবিজির কাছাকাছি থাকতে চাও? যেদিন সবাই পেরেশান থাকবে, সেদিন নবিজির কাছাকাছি থাকতে হলে আদব-আখলাক সুন্দর হওয়া চাই। প্রিয় নবিজি বলেছেন, “তোমাদের মধ্যে যার স্বভাব-চরিত্র সবচেয়ে সুন্দর হবে, কিয়ামাতের দিন সে আমার সবচেয়ে প্রিয় হবে এবং আমার সবচেয়ে কাছে থাকবে।
”আদব-আখলাক শেখার সবচেয়ে ভালো সময় শৈশবকাল। বড় হয়ে শেখা অনেক কঠিন। তাই বড়দের উচিত ছোটদের উত্তম আদব-আখলাক শিক্ষা দেওয়া। সুন্দর আদব-আখলাক গঠনের উদ্দেশ্যেই বহুদিনের প্রচেষ্টায় আমরা নিয়ে এসেছি ‘ছোটদের আদব সিরিজ’ এবং ‘ছোটদের আখলাক সিরিজ’। দুটি সিরিজের মোট বারোটি বই। যেখানে গল্পে গল্পে আদব ও আখলাকের বিভিন্ন দিক ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। ছোটদের উপযোগী করে সহজ সাবলীল ভাষায় উপস্থাপন করা হয়েছে অসংখ্য গল্প। গল্পগুলো বেছে নেওয়া হয়েছে কুরআন, হাদীস ও সীরাতের বিশুদ্ধ কিতাব থেকে। সাথে প্রতিটি পৃষ্ঠাতেই রয়েছে আকর্ষণীয় কারুকাজের রঙিন রঙিন ছবি; যা মুহূর্তেই শিশুদের মন কেড়ে নেবে।

আখলাক সিরিজটির বৈশিষ্ট্:
আখলাক সিরিজে রয়েছে ছয়টি বই।
প্রতিটি বইয়ে আছে ২৪ পৃষ্ঠা।
প্রতি পৃষ্ঠায় আছে মনকাড়া সব রঙ্গিন ছবি ও দৃশ্য। তাই শিশুরা বিরক্ত হবে না।
ছয়টি বইয়ের মোট ১৪৪ পৃষ্ঠায় পাবেন শত শত শিক্ষণীয় গল্প ও ঘটনা।
প্রতিটি গল্পই নেওয়া হয়েছে কুরআন, হাদীস ও সীরাতের বিশুদ্ধ কিতাব থেকে।
ফলে আপনার শিশু অনুপ্রাণিত হবে বিশুদ্ধ ইসলামি শিক্ষার আলোকে।
পুরো সিরিজটি সাজানো হয়েছে শিশুতোষ মন-মানসিকতার কথা মাথায় রেখে। তাই কোথাও জটিল শব্দ বা বড় বাক্য ব্যবহার করা হয়নি। সহজ সাবলীল করার চেষ্টা করা হয়েছে।
আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, যে শিশুরা নিজে থেকে এখনো বই পড়তে পারে না
মানে যাদের বয়স ছয় বছরের কম তারাও এই বইগুলো দেখতে ও শুনতে খুব পছন্দ করবে।
একটি সুন্দর গল্পই বদলে দিতে পারে আপনার শিশুর ভাবনার জগৎ।
আপনার শিশুর আদব-আখলাক যেন সুন্দর হয় সে উদ্দেশ্যেই সাজানো হয়েছে প্রতিটি পৃষ্ঠা, প্রতিটি গল্প।
- ছোটরা গল্প পড়তে পড়তেই জেনে যাবে শত শত বিশুদ্ধ হাদীস।

30% Off

উম্মাহর কিংবদন্তিরা

Tk 300 Tk 210

সেলিব্রেটি শব্দটি শুনলেই আমাদের মাঝে এক অন্যরকম মোহ কাজ করে। সেলিব্রেটি মানেই যেন বিশেষ কেউ। আজ আমরা ঝলমলে দুনিয়ার টলমলে কিছু মানুষকে সেলিব্রেটি বানিয়ে নিয়েছি, যারা কিনা বেহুদা আর অশ্লীল কাজের একনিষ্ঠ কর্মী ছাড়া কিছুই নয়। জীবনের পদে পদে আমরা তাদের অনুসরণ করি, কায়মনোবাক্যে তাদের-ই মতো হতে চাই। কিন্তু এরা কি সত্যিকারের সেলিব্রেটি?
সত্যিকারের সেলিব্রেটি তো তাঁরাই যারা যুগে যুগে ইসলামের ঝাণ্ডা বহন করেছেন, আল্লাহর কালিমাকে বুলন্দ করার জন্য নিজেদের জান ও মাল বিলিয়ে দিয়েছেন। তাঁরাই সত্যিকারের সেলিব্রেটি। তাঁরাই এই উম্মাহর কিংবদন্তি। যদি কাউকে জীবনের আদর্শ বানাতে হয়, যদি কাউকে জীবনের পদে পদে অনুসরণ করতে হয়, তবে তাঁরাই হতে পারেন আমাদের অনুপম আদর্শ।
আমরা কি কখনো তাঁদের মতো হতে চেয়েছি? কখনো কি তাঁদের সম্পর্কে একটুখানি জানার চেষ্টা করেছি? তা হলে কীভাবে আমরা তাঁদের পদাঙ্ক অনুসরণ করব?
বিভিন্ন যুগে ইতিহাস রচনা করা উম্মাহর দশ জন কিংবদন্তির জীবনের গল্প নিয়ে এসেছি আমরা। দুনিয়ার সস্তা সেলিব্রেটিদের ভিড়ে আমরা যেন সত্যিকারের সেলিব্রেটি, সত্যিকারের কিংবদন্তিদের আমাদের আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করতে পারি, সে লক্ষ্যেই সন্দীপন প্রকাশন নিয়ে এসেছে ‘উম্মাহর কিংবদন্তিরা’।

30% Off

তারা ঝলমল

Tk 288 Tk 202

সাহাবীরা হলেন নববী ইলমের ধারক ও বাহক। কিন্তু, তাদের জীবনী সম্পর্কে আমাদের জানাশোনা সাধারণত খুব কম। বেশিরভাগ মানুষ ১০-১২ জনের বেশি সাহাবীর নাম পর্যন্ত জানেন না, তাঁদের জীবনী জানা তো অনেক দূরের কথা!
‘তারা ঝলমল’ বইটি ৩২ জন সাহাবীর জীবনের গল্প নিয়ে। নবিজীর (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) সাথে তাঁদের সম্পর্ক কেমন ছিলো, নিজেদের শ্রেষ্ঠ গুণটি কিভাবে তারা ইসলামের তরে কাজে লাগিয়েছেন এই নিয়েই ‘তারা ঝলমল’।

30% Off

তাকওয়া: মুমিনের সম্বল

Tk 100 Tk 70

তাকওয়া হচ্ছে মুমিনের সম্বল, আখিরাতের সফরের গুরুত্বপূর্ণ পাথেয়। যার মাঝে তাকওয়া নেই, সে ভালো-মন্দের পার্থক্য করতে পারে না। কারণ, তাকওয়ার বদৌলতেই মানুষ ফুরকান (ভালো-মন্দের পার্থক্যকারী গুণ) লাভ করে। তাকওয়া বা আল্লাহভীতিই মানুষকে মন্দ কাজ থেকে বিরত রাখে, আর ভালো কাজে উৎসাহী করে।
তাকওয়া মুত্তাকীদের বৈশিষ্ট্য, পাথেয় লাভের পথ। তাকওয়া মানুষকে জান্নাতের পথে পরিচালিত করে, জাহান্নামের পথ থেকে দূরে সরিয়ে রাখে। তাকওয়ার মাধ্যমেই অর্জিত হয় আল্লাহর সন্তুষ্টি।
আমাদের এই বইটি তাকওয়ার মাহাত্ম নিয়েই। এই বইতে তাকওয়া নিয়ে তিন জন পূর্বসূরী ইমামের আলোচনা সংকলন করা হয়েছে। তাকওয়ার গুরুত্ব ও মাহাত্ম নিয়ে কুরআন-সুন্নাহর বক্তব্য ও সালাফদের তাগিদ আলোচিত হয়েছে এতে। আমাদের পিপাসার্ত অন্তরে তাকওয়ার বীজ রোপণে বইটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে, ইন শা আল্লাহ।

30% Off

তাদাব্বুর ফিল হাদীস

Tk 380 Tk 266

সূর্যের আলোর অনুপস্থিতিতে আমরা বৈদ্যুতিক বাতি জ্বালাই। সূর্যের আলোর আয়োজনটুকু তাতে পাওয়া না-গেলেও আমেজটুকু তো পাওয়া যায়! এটাই বা কম কীসে!

হাদীসের সবচেয়ে মুবারক মজলিসগুলো পেয়েছিলেন সাহাবায়ে কেরাম (রদিয়াল্লাহু আনহুম)। তাঁরা হাদীসের সবক পেয়েছিলেন সরাসরি রাসূলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-এর কাছ থেকে। উম্মাহর শেষের দিকের প্রজন্ম হওয়ায় খুব স্বাভাবিকভাবেই সোনালি সেই সুযোগগুলো থেকে বঞ্চিত হয়েছি আমরা। কিন্তু হাদীস নিয়ে তাদাব্বুর তথা গভীর চিন্তাভাবনা আমাদেরকে সেই আমেজটুকু উপহার দিতে পারে।
হাদীস তো ওহির-ই আরেকটি রূপ। কুরআন নিয়ে চিন্তাভাবনা করা যেমন জরুরি, ঠিক তেমনি প্রয়োজন হাদীস নিয়েও চিন্তাভাবনা করা। তবেই ওহির আলোয় জীবন হবে আলোকিত, মনন হবে উদ্ভাসিত।
রাসূলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-এর মুবারক হাদীসগুলো থেকে বাছাইকৃত ৪০টি হাদীস নিয়ে টুকরো টুকরো তাদাব্বুরের সংকলন আমাদের এই ‘তাদাব্বুর ফিল হাদীস’ বইটি। এখানে যেমন রাসূলুল্লাহ (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-এর হাদীসের নিগূঢ় তত্ত্ব আলোচিত হয়েছে, তেমনি উঠে এসেছে সেগুলোর শিক্ষা ও জীবনঘনিষ্ঠ মাসআলা। নববি হাদীসের গভীরতায় পাঠক এক নতুন আলোর সন্ধান পাবেন এ বইটি পড়ে, ইনশাআল্লাহ।

30% Off

সূরা কাহফের আলোকে মুক্তির মশাল

Tk 220 Tk 154

যুদ্ধকালীন সংকটে প্রতিটি দেশ যেভাবে তার নাগরিকদের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা দিয়ে থাকে, ফিতনার ঘনঘটা দেখা দিলে সূরা কাহফও মুমিনদেরকে ঠিক সেভাবেই সুরক্ষা দেয়। বাতলে দেয় ফিতনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সঠিক পথ ও পন্থা।

সূরা কাহফ ঈমানকে শক্তিশালী ও পূর্ণ করার পাশাপাশি সংরক্ষণের উপায়ও বাতলে দেয়। এই সূরাতে মানুষের মৌলিক শক্তিমত্তার তিনটি শাখা (ইলম, অর্থ-সম্পদ এবং ক্ষমতা ও রাজত্ব) তুলে ধরা হয়েছে। এটা এমন ইলম যা সৎপথে পরিচালনা করে, এমন সম্পদ যা সৎপথে চলতে সহায়ক হয় আর এমন রাজত্ব যা সৎপথের অভিযাত্রাকে নিরাপদ ও সংরক্ষিত রাখে। কারণ, দ্বীনের ওপর টিকে থাকতে এসবের কোনো বিকল্প নেই। সত্যি বলতে শুধু ব্যক্তিমানুষ না, গোটা একটি সভ্যতার সাফল্যও মূলত এই নিয়ামকগুলোর ওপর নির্ভরশীল।
মানব সভ্যতার শৌর্যবীর্য ও শক্তিমত্তার প্রধান এই তিন উপলক্ষই আবার নিদারুণ দুর্বিপাক আর পরীক্ষার ক্ষেত্র তথা ফিতনার উর্বর ভূমি। মুমিনমাত্রই পার্থিব জীবনে নানা বিপদাপদের আঘাত আর শত্রুপক্ষের বিষাক্ত দুরভিসন্ধির শিকার হয়ে থাকে। পাশাপাশি নিজের নানাবিধ দুর্বলতা, হতাশা আর অবসাদ তো রয়েছেই।
জীবনের রন্ধ্রে রন্ধ্রে এঁটে বসা ফিতনার এসব বজ্র আঁটুনি থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় হলো ওহির আলোকশক্তিকে আঁকড়ে ধরা। অর্থাৎ কুরআনের নূরানি শক্তিতে বলিয়ান হয়ে উঠা। আর তা রয়েছে সূরা কাহফে। এটি আপনাকে ফিতনার ঘনঘটা থেকে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে সক্ষম। পাঠক, বক্ষ্যমাণ বইটিতে আপনি খুঁজে পাবেন সূরা কাহফের সেই মুক্তির মশাল, যার সাহায্যে মুক্তি পাবেন যাবতীয় ফিতনা থেকে।

30% Off

শ্রেষ্ঠ প্রজন্মের দুনিয়াবিমুখতা (হার্ডকভার)

Tk 460 Tk 322

আমাদের আদি-নিবাস ছিল জান্নাত। কোনো এক কারণে আমাদেরকে দুনিয়ায় আসতে হয়েছে। এখান থেকে আমরা আবারও জান্নাতে পাড়ি জমাব ইন শা আল্লাহ। তার আগে জান্নাতে যাওয়ার পাথেয় অর্জন করে যাব এই দুনিয়া থেকেই।

দুঃখের বিষয় হলো, আমরা অনেকেই আমাদের চূড়ান্ত গন্তব্যের কথা ভুলে যাই। অল্প সময়ের জন্য অতিথি হয়ে আসা এই পৃথিবীকেই আমরা চিরস্থায়ী আবাস ভেবে ভুল করি। গন্তব্যের কথা ভুলে গিয়ে গন্তব্যে পৌঁছানোর মাধ্যমকেই আঁকড়ে ধরি।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই আমাদের জন্যই বলে গিয়েছেন,
‘দুনিয়াতে অপরিচিত হয়ে বসবাস করো, যেন তুমি একজন মুসাফির।’

হ্যাঁ, অস্থায়ী এই দুনিয়াতে আমরা জীবনযাপন করব একজন মুসাফিরের মতো। এই সফরে আমরা জান্নাতের পাথেয় অর্জন করব। জান্নাতের পাথেয় অর্জনের এই সফরে আমাদের সঙ্গী হবে ইমাম বাইহাকি  রচিত প্রায় ১০০০ বছর পূর্বের কিতাব ‘আয-যুহদুল কাবীর’। বক্ষ্যমাণ গ্রন্থটি সেটির-ই অনুবাদ।

30% Off

সংসার ভাবনা

Tk 200 Tk 140

পরীক্ষায় ভালো রেজাল্ট, হ্যান্ডসাম ক্যারিয়ার, অতঃপর একটি সুন্দর সংসার—আমাদের অধিকাংশের জীবনের লক্ষ্য থাকে এরকমই। সুন্দর সংসার খুবই গুরুত্বপূর্ন একটি ফ্যাক্টর। কেননা, একটি সুন্দর সংসার আমাদের দ্বীন পালন অনেকটাই সহজ করে দেয়।
তাই, সংসার নিয়ে ভাবনার ডালপালায় ঘুরে বেড়ানো আমাদের জন্য অপ্রয়োজনীয় বা অহেতুক কিছু নয়। বরং এটি আমাদের জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। বিয়ে তো আমাদের অর্ধেক দ্বীন।
‘সংসার ভাবনা’ বইয়ের আবির্ভাব সেই প্রয়োজন থেকেই। জীবনসঙ্গী কেমন হওয়া উচিত, নারীবাদের বিষাক্ত ক্যান্সার থেকে তাকে মুক্ত রাখা, পরিবার পরিকল্পনা ও সন্তান প্রতিপালন ইত্যাদি বিষয়ের উপর বাস্তবধর্মী আলোচনা ওঠে এসেছে এই বইতে। ইন শা আল্লাহ, আমাদের পারিবারিক জীবন আরও মধুময় করে তুলতে বইটি সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলেই আমাদের বিশ্বাস।

30% Off

সম্পদ গড়ার কৌশল (একজন মুসলিম উদ্যোক্তা হালাল পন্থায় যেভাবে সম্পদ গড়বেন)

Tk 300 Tk 210

আপনি কি ধনী মুসলিম হতে চান?
আপনি কি জানতে চান মুসলিম হয়েও কীভাবে প্রচুর টাকা উপার্জন করা যায়?
কীভাবে এ প্রতিযোগিতায় অন্যদের টেক্কা দেয়া যায়?
ভাবছেন, এতো টাকা দিয়ে করবটা কী?
সফল মুসলিম উদ্যোক্তা হতে কী কী দক্ষতা প্রয়োজন?
ওপরের প্রশ্নগুলোর উত্তর নিয়েই ‘সম্পদ গড়ার কৌশল’ বইটি। বইটিতে আরও স্থান পেয়েছে বর্তমান সময়ের বেশ ক’জন সফল মুসলিম উদ্যোক্তাদের নাম ও কর্মগাঁথা, যা জেনে আপনিও উদ্যোক্তা হওয়ার অনুপ্রেরণা পাবেন। জানতে পারবেন সম্পদ গড়ার চমৎকার সব কৌশল। আরও জানতে পারবেন সম্পদ গড়ার এ পথে আপনাকে কী কী চ্যালেঞ্জ মুকাবিলা করতে হবে।
প্রিয় পাঠক, আপনি কি সাদ ইবনু আবী ওয়াক্কাস আর উসমান ইবনু আফফান রদিয়াল্লাহু আনহুমদের মতো ধনবান মুসলিম ব্যবসায়ী হতে চান? তাহলে সম্পদ গড়ার কৌশল পাঠে আপনাকে স্বাগতম!

30% Off

সত্যকথন ২

Tk 270 Tk 189

একসময় মুশরিকরা idol (মূর্তি) পূজা করত। এখনকার মুশরিকরা ideology (মতাদর্শ) পূজা করে। পশ্চিমারা আজ বিভিন্ন বস্তুবাদী মতবাদকে সেরা ধরে নিয়ে ইসলামকে আক্রমণ করে। ইসলাম কেন তাদের মনমতো হলো না—এসব জানতে চায়। এটা ওই মক্কা আর গ্রীসের মুশরিকদের পুরোনো কলাকৌশলের-ই নতুন রূপ। ওই একই পদ্ধতিতেই এর মোকাবিলা করতে হবে।
কিন্তু অমুসলিমরা একটার পর একটা আক্রমণাত্মক প্রশ্ন করেই যাবে, আর মুসলিমরা সেগুলোর রক্ষণাত্মক জবাব দিয়েই যাবে—এটা দাওয়াহর আদর্শ পদ্ধতি নয়। যাদের অন্তরে রোগ আছে, তারা একের-পর-এক প্রশ্ন আনতেই থাকবে। এগুলোর প্রত্যুত্তরে বই লিখতে থাকলে বইয়ের লাইব্রেরি হয়ে যাবে, কিন্তু বিদ্বেষীদের প্রশ্ন তখনও শেষ হবে না।
তা ছাড়া ইসলামের কিছু বিধান এমন আছে, যেগুলো অমুসলিম তো দূরের কথা, মুসলিমদের কুপ্রবৃত্তিই মানতে চাইবে না। এমনকি কিছু হুকুমের ব্যাপারে আল্লাহ তো জানিয়েই দিয়েছেন যে, এগুলো আমাদের অপছন্দ হবে। কিন্তু কুপ্রবৃত্তির বিরুদ্ধে গিয়ে সেগুলো পালন করতে হবে। ‘আজকে এগুলো অমুসলিমদেরকে পছন্দ করিয়েই ছাড়ব’—এমন মনোভাব নিয়ে যদি কেউ নাস্তিকদের সাথে তর্ক শুরু করে, তাহলে প্রবল সম্ভাবনা আছে যে, তার্কিক সাহেব আল্লাহর দ্বীনকেই বিকৃত করে ছাড়বেন। আবার কিছু বিধান আছে যেগুলো বাস্তবে প্রয়োগ করে দেখানো ছাড়া কখনোই সেগুলোর সুফল বোঝা যাবে না। যেমন—ইসলামি অর্থনীতি বা বিচারনীতি বাস্তবে প্রয়োগ না করে শুধু এর পক্ষে বইয়ের পর বই লিখে যাওয়াটা পূর্ণাঙ্গ সমাধান না।
‘সত্যকথন ২’ বইটিতে নাস্তিক-অজ্ঞেয়বাদী-সেক্যুলার কর্তৃক সৃষ্ট সংশয়ের প্রত্যুত্তর দিয়েই ক্ষান্ত হননি লেখকেরা, সেগুলোর ব্যবচ্ছেদও করেছেন। সংশয়ের দোলাচলে দোল খাওয়া মুসলিমদের সংশয় নিরসনে বইটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে ইন শা আল্লাহ।

30% Off

স্বপ্ন-রঙিন দিন

Tk 320 Tk 224

কিশোর বয়স বড় অদ্ভুত একটা সময়। এ বয়সে শরীর-মন সবই থাকে উচ্ছ্বল-প্রাণবন্ত। প্রাণপ্রাচুর্যে ভরা এ বয়সটাকে তাই পরবর্তী জীবনে স্বপ্নের মতোই লাগে।
পা পিছলে যাবার শুরুটাও হয় এ বয়সেই। অনাবিল মন-মস্তিষ্ক আবিলতায় ছেয়ে যায় উপযুক্ত সাহচর্য না পেলে। ক্লান্তিহীন প্রাণ ক্লেদাক্ত হয়ে পড়ে অসৎসঙ্গে—আর তাতেই ঘটে সর্বনাশ!
এ সর্বনাশের নাগপাশ এড়াতে চাইলে উচ্ছ্বল এ বয়সেই দ্বীনি চিন্তা-চেতনার চর্চা প্রয়োজন। আর চর্চার জন্যে চাই অনুসন্ধিৎসু মন। ‘স্বপ্ন-রঙিন দিন’ উপন্যাসটির প্লট সাজানো হয়েছে সেরকমই কিছু জিজ্ঞাসু কিশোর চরিত্রকে ঘিরে। কেন্দ্রীয় চরিত্র মাহমুদ কীভাবে তার ভাইয়ার কাছ থেকে দ্বীন ও দ্বীনি চেতনা সম্পর্কে দীক্ষা পায়, তা-ই আমরা দেখব সুলিখিত এই উপন্যাসের মাধ্যমে।
কিশোর ও তরুণ বয়েসী পাঠকেরাও এতে পাবে অনেক জানা-বোঝার খোরাক।